Goodman Travels

হবিগঞ্জ ডিবি পুলিশের অভিযানে মাধবদী থেকে বানিয়াচংয়ের যাবত জীবন সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলার যাবত জীবন সাজাপ্রাপ্ত এক আসামীকে গ্রেফতার করলো হবিগঞ্জ ডিবি পুলিশ। গ্রেফতারকৃত আসামী হলো,বানিয়াচং উপজেলার ১২নং সুজাতপুর ইউনিয়নের দত্তপুর গ্রামের রহমত আলীর পুত্র ছানাউল্বা(ছানা-৪৫) ডিবি পুলিশ সূত্রে জানাযায়, বানিয়াচংয়ের একটি মার্ডার মামলায় ছানার বিরুদ্ধে যাবত জীবন সাজা হয়।

তারপর থেকে ছানা হবিগঞ্জ জেলার বাহিরে গিয়ে আত্মগোপন করে ১৪ বছর ধরে পালিয়ে দিন-যাপন করে আসছিল। এমন তথ্য পাওয়ার পর হবিগঞ্জ ডিবি পুলিশ এবিষয়ের উপর গুরুত্ব দিয়ে কাজ করে আসছিলেন।এরই ধারাবাহিকতায় এবং তাদের সৌর্স মারফতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পলাতক আসামী ছানার খবর পান।

খবর পেয়ে হবিগঞ্জ ডিবি পুলিশের অফিসার ইনচার্জ(ওসি)আলামিন মিয়ার নেতৃত্বে অপারেশন পরিচালনা করার জন্য ডিবি’র এসআই মোজাম্মেলসহ একদল পুলিশ ভোর সকালে হবিগঞ্জ থেকে নরসিংদী জেলার মাধবদী উপজেলায় রওয়ানা হয়ে দুপুরের সেখানে গিয়ে পৌঁছেন। প্রায় বেলা আড়াইটার দিকে ছানা মিয়ার অবস্হান শনাক্ত করে অভিযান চালিয়ে থাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন।

তারপর সেখান থেকে গ্রেফতারকৃত ছানা মিয়াকে নিয়ে হবিগঞ্জ ডিবি কার্যালয়ে আসা হয়েছে বলেও সূত্রে জানাযায়। এব্যাপারে অপারেশন পরিচালনাকারী ডিবি’র এসআই মোজাম্মেল হুসেনের সাথে রাত ১১টা ৩২মিনিটে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি এসবের সত্যতা নিশ্চিত করেন।

কোন হত্যা মামলায় তার সাজা হয়েছে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন,১৯৯৯ইং সনে বানিয়াচং সুজাতপুরের একটি মার্ডার হয়।তারপর এই ঘটনায় মামলা দায়েরের পর ২০০৬ইং সনে এই মামলায় তার যাবত জীবন সাজা প্রদান করা হয়েছিল।

এরপর থেকে দীর্ঘ ১৪ বছর পালিয়ে বেড়াচ্ছিল বিভিন্ন জেলা উপজেলার বিভিন্ন স্হানে।প্রায় ১৫ বছরের পলাতকালে আমাদের আলামিন স্যারের কারনেই তাকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি।তবে যাকে হত্যা করা হয়েছিলো তার নামটি স্বরন নেই বলেও জানান।