Goodman Travels

বানিয়াচংয়ে আবারও গণডাকাতি

হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:হবিগঞ্জের বানিয়াচং টু মার্কুলি কাদিরগন্জ সড়কে আবারও গনডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে ৮এপ্রিল বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে দশটার দিকে ঐ সড়কের কামালখানি জেয়ারের ভারারাপুতা নামকস্হানে।

ডাকাতের কবলে শিকার হওয়া সাফু মিয়া জানান, ৮/১০জনের মুখোশধারী একদল ডাকাত রাত আনুমানিক সাড়ে ১০টা থেকে ডাকাতি শুরু করে প্রায় ঘন্টা দেড় ঘন্টা সময় তাদেরকে বেধে রেখে উভয় দিক থেকে আসা ৩টি মোটরসাইকেল,১টি ট্রলিসহ ৭জনের সবকিছু নিয়ে নেন ডাকাতদল। প্রথমে বানিয়াচং থেকে একটি ট্রলি বগী যাওয়ার পথে ডাকাতের কবলে পড়েন। ডাকাতরা প্রথমে তাকে আটক করে বেঁধে ফেলে এবং তার কাছ থেকে ৮/৯শত টাকা ও মোবাইল ফোন নিয়ে নেয়। এছাড়া থাকে ট্রলির মধ্যেই বেধে রাখা অবস্হায়ই দেখতে পান তারা।

সাফু মিয়া বলেন,আমরা বাতাকান্দি গ্রাম থেকে আমাদের আত্বীয় একজন মহিলার জানাজার নামাজ আদায় করে বাড়ি ফিরছিলাম ২টি মোটরসাইকেলে করে ৩জন। ৬নং ইউপি’র সাবেক মেম্বার সিরাজুল ইসলাম,দত্তপাড়া গ্রামের তোফাজ্জল মিয়া নামের এক শিক্ষক ও চতুরঙ্গরায়েরপাড়া গ্রামের প্রবাসী সাফু মিয়া।আমরাও উল্লেখিত স্হানে এসে ডাকাতের কবলে পড়ি। ডাকাতরা আমাদেরকেও বেধে ফেলে এবং ৩ জনের কাছ থেকে নগদ ৪/৫হাজার টাকা ও ৩টি মোবাইলসহ সবকিছু লুটে নেয়। কিছুক্ষণ পর পরই বানিয়াচং থেকে একটি মোটরসাইকেল যোগে ৩ জন লোক এখানে এসে ডাকাতদের হাতে আটক হয়।তারাও বানিয়াচং থেকে বগী,চমকপুর যাচ্ছিল।

তাদের কাছ থেকেও নগদ টাকা ৩টি মোবাইল ফোন ও তাদের মোটরসাইকেলটি নিয়ে নেয়। এসময় ডাকাতদেরকে টাকা ও মোবাইল ফোন দিতে দেরি হওয়ার কারনে একজনকে দা’দিয়ে মাথায় আঘাত করে আহত করে ডাকাতরা। ডাকাতরা আহত ব্যাক্তিকে না বাধার কারনে তার সহযোগীতায়ই সবাই মুক্তি পান বলেও জানান সাফু মিয়া। এদিকে তাদের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়ায় বানিয়াচং সদর থেকে ডাকাতের কবলে শিকার হওয়া লোকজনের পরিবারের সদস্যরা বাড়ি থেকে ঐ রাস্তা দিয়ে রওয়ানা হয়। এবং ঘটনাস্থলের কাছাকাছি গিয়ে তাদেরকে রাত প্রায় সাড়ে ১২টার দিকে নিয়ে আসেন।

এই ঘটনাটি থানা পুলিশকে জানানো হয়েছে কিনা জানতে চাইলে,তারা জানায় দিনে মেম্বার সিরাজুল ইসলাম এবিষয়ের উপর থানায় একটি জিডি করবেন। এব্যাপারে রাত ১টা ৪৮মিনিটে মুঠোফোনে বানিয়াচং থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি)এমরান হুসেন জানান,এই স্হানটি হাওরে হওয়ায় এখানে কোন পুলিশ থাকেনা।

এছাড়া তিনি জনসাধারণের সেবায় ৯টি পুলিশ বাহিনীকে প্রতিদিন ডিউটিতে নিয়োজিত রেখে সর্বদা কাজ করে যাচ্ছেন।এই ঘটনার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার করার জন্য রাতেই অভিযান চালিয়েছেন এবং ওদেরকে গ্রেফতার না করা পর্যন্ত অভিযান চলবে বলেও জানান।

উল্লেখ্য,ইতিপূর্বে একরাতে বানিয়াচং নবীগঞ্জ সড়কের কাগাপাশা রোডে এবং এই স্হানে দুটি গনডাকাতি সংঘটিত হয়েছিল