Goodman Travels

কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় সন্ত্রাসী হামলায় একই পরিবারের তিন জন আহত

মো. রেজাউর রহমান তনু কুষ্টিয়া প্রতিনিধিঃ – কুষ্টিয়া জেলার ভেড়ামারা উপজেলাতে সন্ত্রাসী হামলায় একই পরিবারের তিন জন আহত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। আহতদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানান এলাকাবাসী। ভেড়ামারা থানায় নয় (৯) জনকে আসামী করে একটি হত্যা চেষ্টা মামলা দায়ের হয়েছে। মামলা নাম্বার-০৯, তারিখ ২৪/০১/২০২১ খ্রিঃ।
এজাহার থেকে জানা যায়, শুক্রবার আনুমানিক তিন টার সময় পূর্ববত্রুতার জেরে উপজেলার মোকারমপুর ইউনিয়নের গোলাপনগর (কদম তলা) এলাকার মৃত রুস্তম প্রামানিকের ছেলে মেহেরুন প্রামানিক (৪৫), মেহেরুনের স্ত্রী সাজেদা (৪০) মেহেরুন প্রামানিকের ছেলে শান্ত (২০) ও বিপুল প্রামানিক(৩০), মৃত রুস্তম প্রামানিকের আরেক ছেলে হাশেম প্রামানিক(৫৫), হাতের স্ত্রী রুপ জান(৪৫), হাশেমের ছেলে রতন (২৫), মাহবুবের ছেলে নাজমুল(২৬) ও নাজমুলের স্ত্রী জিনিয়া (২২) সকল সাং গোপালনগর থানা ভেড়ামারা, জেলা- কুষ্টিয়া দেশীয় অস্ত্র ( হাঁসুয়া, লাঠি, দা, ইত্যাদি) নিয়ে হত্যার উদ্দেশ্যে একই এলাকার আমজাদ হোসেনের বাড়িতে প্রবেশ করে আমজাদ হোসেনের স্ত্রী মনোয়ারা খাতুন (৫০) তাদের ছেলে আব্দুর সালাম (৩২) ও মেয়ে শামিমা খাতুন (১৮) কে উক্ত অস্ত্র দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে।
তাদের আত্ম চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে আসামীরা দ্রুত পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ভেড়ামারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যায়, মনোয়ারা খাতুনের দুই হাত ভেঙ্গে যায় শামিমা খাতুনের মুখমণ্ডল ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়। সালামের শরীরেও কয়েক স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।
এদিকে, আহত মনোয়ারার ছেলে শাওন জানান, আসামীরা প্রভাবশালী হওয়ায় আমরা চরম নিরাপত্তা হিনতায় আছি। মামলা তুলে নিতে গতকাল থেকে আজ পর্যন্ত বিভিন্ন ভাবে হুমকি দিয়ে আসছে।
থানা সূত্রে জানাযায়, আসামী ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে। সঠিক তদন্ত করে দোষীদের শাস্তি নিশ্চিত করা হবে। স্থানীয়রা মনে করেন, প্রামানিকরা যে ঘটনা ঘটিয়েছে এটা ন্যাক্কারজনক, দ্রুত আসামিদের আইনের আওতায় এনে কঠিন বিচার করা হোক।