Goodman Travels

ঈশ্বরদীতে বিএনপির স্বাধীনতার ৫০বছর রজতজয়ন্তী উদযাপন প্রস্তুতি সভা

অনলাইন রিপোর্টঃ স্বাধীনতার ৫০বছর রজতজয়ন্তী উদযাপন প্রস্তুতি সভায় নেতৃবৃন্দ বলেছেন, ‘মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনায় ফিরিয়ে নেওয়ার’ প্রত্যাশা নিয়েই স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীর অনুষ্ঠান করবে ঈশ্বরদী উপজেলা ও পৌর বিএনপিসহ অঙ্গ সহযোগি সংগঠন।

বিএনপির নেতারা বলেন, ‘প্রতিটি ক্ষেত্রে আমরা দেখতে পারছি যে, গণতন্ত্রের আজকে কি অবস্থা? বিচার ব্যবস্থা, গণমাধ্যমের কী অবস্থা- এটা ব্যাখ্যার প্রয়োজন হয় না। আজকে মুক্তিযুদ্ধের সকল চেতনা ভুলণ্ঠিত। ’

‘৫০ বছর পূর্তিতে আমাদের মূল থিম হলো, আমরা বাংলাদেশকে সেই বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের মূল চেতনায় ফিরিয়ে নিতে চাই এবং সেই চেতনাকে আমরা প্রতিষ্ঠা করতে চাই। এটা হবে বিএনপির সুর্বণজয়ন্তীর মূল লক্ষ্য এবং মূল উদ্দেশ্য। ’

২০২১ সালের বছরব্যাপী ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা ও অনাড়াম্বরপূর্ণভাবে বিএনপি স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী পালন করার সিদ্ধান্ত হয়। তাঁরই অংশ হিসেবে ঈশ্বরদীতে ব্যাপকভাবে উদযাপিত হবে এবারের স্বাধীনতা দিবস।

কর্মসূচির মধ্যে থাকবে, জাতীয় ও দলীয় এবং কালো পতাকা উত্তোলন, স্মৃতিস্তম্ভে পুস্পমাল্য অপর্ণ, আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল, সমাবেশ ও বর্ণাঢ্য র‌্যালিও রয়েছে কর্মসূচিতে।

বক্তারা আরও বলেন, ঈশ্বরদী-আটঘরিয়া বিএনপির রাজপথের লড়াকু শহীদ জিয়ার আদর্শের সৈনিক কর্মিবান্ধব উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব জননেতা জাকারিয়া পিন্টু, বিএনপির আরেক কর্মিবান্ধব জননেতা আকরাম আলী খান সঞ্জুর নেতৃত্বে আগামী ২৬ মার্চ স্বাধীনতার ৫০বছর রজতজয়ন্তী সফলভাবে পালন করার লক্ষ্যে ঈশ্বরদী বিএনপির সকল পর্যায়ের নেতাকর্মী সমর্থকদের ২৬ মার্চ সকাল ৮ টার সময় রেলগেটস্থ দলীয় কার্যালয়ে উপস্থিত হওয়ার আহ্বান জানান।

সোমবার(২২ মার্চ) বিকালে শহরের পশ্চিমটেংরী খায়রুজ্জামান বাবু সংলগ্ন ব্রাদার্স ক্লাব মিলনায়তনে স্বাধীনতার ৫০বছর রজতজয়ন্তী উদযাপন উপলক্ষ্যে ঈশ্বরদী উপজেলা ও বিএনপি আয়োজিত সমন্বয় সভায় তারা এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি নেতা ও বিশিষ্ট শিল্পপতি জননেতা আকরাম আলী খান সন্জু।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা বিএনপির অহবায়ক ও শ্রমিক নেতা আহসান হাবীব।

পৌর বিএনপির সদস্য সচিব বিষ্ট সরকারের পরিচালনায় প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পৌর বিএনপির সিনিয়র যুগ্ন আহবায়ক এস এম ফজলুর রহমান।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ঈশ্বরদী উপজেলা বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক হাজ্বী খায়রুল ইসলাম, বিএনপির নেতা আঃ সোবাহান খান, পৌর বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক আতাউর রহমান পাতা, আমিনুর রহমান স্বপন, শামসুদ্দোহা পিপ্পু, আহবায়ক কমিটির সদস্য আব্দুল্লাহ আল ওমর খান সুমার, সৌদিআরব ও জেদ্দা শ্রমিকদলের সাধারণ সম্পাদক শাহালম আলম।

আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রাজ্জাক, বীর মুক্তিযোদ্ধা ডাঃ নুরুল ইসলাম, হাসান আলী, সাবেক কাউন্সিলর ইলিয়াস হোসেন এলবাস, কাউন্সিলর মনিরুল ইসলাম সাবু, কাউন্সিলর ইঞ্জিনিয়ার আবু জাহিদ উজ্জল, সাঁড়া ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি আক্কাস আলী, পাকশী ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, বিএনপির নেতা আরজ আলী, মুরাদ আলী, আব্দুল গাফ্ফার, সাবেক ছাত্রনেতা আবু সাঈদ লিটন, উপজেলা যুবদলের সাবেক আহবায়ক সুলতান আলী টনি বিশ্বাস, পৌর যুবদলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আক্তার হোসেন নিফা, সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন জুয়েল, পৌর যুবদলের যুগ্ন সম্পাদক সাজেদুজ্জামান জিতু, রেজাউল করিম মুকুল, যুবদল নেতা সাইদুর রহমান সাঈদ, নবগঠিত পৌর সেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক মামুনুর রশীদ নান্টু, সদস্য সচিব মাহমুদুর রহমান জুয়েল, উপজেলা সেচ্ছাসেবকদলের নেতা শরিফুজ্জামান শরীফ, সোহেল রানা, উপজেলা ছাত্রদলের প্রস্তাবিক কমিটির সভাপতি সাগর হোসেন রনি, কলেজ ছাত্রদলের প্রস্তাবিক কমিটির সভাপতি মাহামুদুল হাসান শাওন প্রমূখ।

স্বাধীনতার এই সূবর্ণ জয়ন্তীতে বিএনপি নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ গণআন্দোলনের মাধ্যমে অবৈধ হাসিনা সরকারের পতন ঘটাতে হবে বলে মন্তব্য করেন নেতারা।