Goodman Travels

ঈশ্বরদীতে পুর্ব শত্রুতায় অন্তস্বত্তা গৃহবধূ ক্ষুন।। গৃহকর্তা মারাত্নক জখম আসামি আটক

মো: ইয়াছিন আলী শেখ, বিশেষ প্রতিনিধি :পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার দাশুড়িয়ায় দূর্বৃত্তের রামদায়ের কোঁপে শারমিন শিলা (৩২) নামে এক গৃহবধূ নিহত হয়েছে। এদিকে এলাকাবাসী ওই দূর্বৃত্তকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে।

মঙ্গলবার (২১ ডিসেম্বর) সকাল ছয়টার দিকে পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার দাশুড়িয়া ইউনিয়নের এম এম উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশে মুনসিদপুর এঘটনা ঘটে। নিহত গৃহবধূ ঈশ্বরদী পৌর এলাকার আকবরের মোড় মশুড়িয়াপাড়া মহল্লার মৃত রহমত আলীর মেয়ে। দাশুড়িয়া মুনসিদপুর এলাকার ব্যবসায়ী রানাউর রহমানের সহধর্মিণী। তার একটি ছেলে সন্তান রয়েছে ঈশ্বরদী সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ফিরোজ কবীর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। এলাকাবাসী- পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (২১ ডিসেম্বর) সকাল আনুমানিক পৌনে ৭ টার দিকে ঈশ্বরদী উপজেলার দাশুড়িয়া ইউনিয়নে মুনসিদপুরে গৃহবধূর চারতলা বাড়ির রান্নাঘরে রান্না করছিল গৃহবধূ শিলা। বাড়িতে লোকজন না থাকায় পূর্বশত্রুতার জের ধরে সকলের অগচরে চারতলায় প্রবেশ করে ওই দুষ্কৃতকারী। রান্নাঘরে ঢুকে রামদা দিয়ে এলোপাথাড়ি ভাবে কোঁপাতে থাকে।গৃহবধূ শিলা নিজের প্রাণ বাঁচানোর জন্য দৌড়ে বাড়ির ছাদে আশ্রয় নেয়। চিৎকার চেঁচামেচি করতে থাকে।

এসময় দুষ্কৃতকারী ছাঁদে গিয়ে কোপাতে থাকে। এসময় বাড়ির নিচে ছিল গৃহবধূ শিলার স্বামী। পরে তিনি দৌড়ে দুইজনের ধ্বস্তাধস্তিতে ছাঁদ থেকে নিচে পড়ে যায় ওই দুষ্কৃতকারী। এসময় স্থানীয় এলাকাবাসী তাকে আটক করে পুলিশে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল গিয়ে আহত অবস্থায় ওই দুষ্কৃতকারীকে আটক করে। এবং তার স্বামী ব্যবসায়ী রানা ইসলাম মারাত্নক ভাবে আহত হয়েছেন।

বর্তমানে সে পাবনা পাবনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন পরে ঈশ্বরদী থানার তদন্ত (ওসি) হাদিউল ইসলাম সাংবাদিকদেরকে জানান, ওই দুষ্কৃতকারীকে পুলিশ আটক করেছে। বর্তমানে অসুস্থ থাকার কারণে তাকে ঈশ্বরদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে চিকিৎসাধী রয়েছে।

পুলিশ ঘটনাস্থলে নিহত গৃহবধূর লাশ সুরতাহাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য থানায় নিয়ে এসেছে। পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হবে। পূর্বশত্রুতার কিনা? পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখে আটককৃত দুষ্কৃতকারীর কাছে জিজ্ঞাসাবাদ করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করবে।