Goodman Travels

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এর সহযোগিতায় বুদ্ধি প্রতিবন্ধী হৃদয় ফিরে পেল মায়ের কোল

মোঃ রেজাউর রহমান তনু,কুষ্টিয়া প্রতিনিধি:-ভেড়ামারা সার্কেলর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইয়াছির আরাফাতের সহযোগিতায় স্পেশাল চাইল্ড হৃদয় কে তার মায়ের কোলে ফিরে গেলো।
গত ১০-৬-২১ খ্রিঃ বৃহস্পতিবার স্পেশাল চাইল্ড হৃদয় নামের ছেলেটি ভেড়ামারা বাহিরচর ইউনিয়নের ১৬দাগ গ্রামে ঘুড়ে বেড়াতে থাকে। এসময় স্থানীয় তার পরিচয় জানতে চাইলে সে এলোমেলো উওর দেয়।
এ অবস্থায় তাকে নিয়ে এসে ভেড়ামারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) জহির উদ্দিন ও উপপরিদর্শক পিংকি বিশ্বাসের তত্ত্বাবধানে রাখা হয়। শুক্রবার বিকেলে ভেড়ামারা থানায় এসে হৃদয়কে তার মামাতো ভাই নিয়ে যায়। স্পশাল চাইল্ড হৃদয়(১১) কুড়িগ্রাম জেলার রাজারহাট উপজেলার পাঙ্গা রাজবাড়ি গ্রামের হারেজ হোসেনের ছেলে।
ভেড়ামারা সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইয়াছির আরাফাত ঘটনার বিবরণ দিয়ে বলেন, স্পেশাল চাইল্ড হৃদয় নামের ছেলেটাকে পাওয়ার বিষয়টি জানার পর আমি নিজে গিয়ে তার সাথে কথা বলি। সে শুধু মা ও বাবার নাম এবং জেলার নাম বলতে পারছিলো। এসময় আমি ভেড়ামারা সার্কেলের ফেসবুক পেইজে তার ছবি ও সামান্য পরিচয় তুলে ধরে পোস্ট করি।
এরমধ্যে সেখান থেকে অনেকেই ফোন দিয়ে সহযোগিতার আশ্বাস দেন পরে তার বাবা মায়ের ঠিকানা পাওয়া যায়। তার মায়ের সাথে কথা বলি তার মা অসুস্থ এক পর্যায়ে নাটোরের তার মামাতো ভাই সুমনের ঠিকানা দেয় এবং তাকে পাঠাবে বলে জানায়।
তিনি জানান, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জহুরুল ইসলাম এবং এস আই পিংকি বিশ্বাস হৃদয়ের মা, নানী ও খালা ও মামাতো ভাইয়ের কাছে কথা বলে হস্তান্তরের বিষয়ে সুন্দর ও মানবিক কাজটি সুচারুভাবে সম্পন্ন করেন।
তিনি বলেন, আমার পোস্টটি দেখে তার পরিচিত কুড়িগ্রামের অনেকে আমার কাছে ফোন করেন। কুড়িগ্রামের মানুষ সহযোগিতা করা ও খবরাখবর নিয়েছেন, বিষয়টি আমাকে খুব অনুপ্রাণিত করেছে। আসলে মানবিক কাজে মানুষ যেভাবে এগিয়ে আসছে, তা দেখে খুবই ভালোই লাগছে।
ছেলেটার নিষ্পাপ হাসি আর দুষ্টুমিতে ভেড়ামারার থানার সবাইকে মাতিয়ে রেখেছিলো। মামাতো ভাইয়ের সাথে চলে যাওয়ায় পরে তার ঐ নিষ্পাপ হাসিটা বারে বারে মনে পড়ছে। তবে খুব খারাপ লাগছে এই ভেবে ছেলেটি অসুস্থ, তার মাও অসুস্থ। তাদের চিকিৎসার ব্যাপারে এগিয়ে আসতে, সুহৃদয় বিত্তবান ব্যক্তিদের আহবান জানাচ্ছি